Youtube- Video----------Lovely Girl Naba

>
Home / Uncategorized / ছোট চাচীর সাথে আমার সম্পর্ক তৈরী হয় মাত্র কয়েক দিনেই

ছোট চাচীর সাথে আমার সম্পর্ক তৈরী হয় মাত্র কয়েক দিনেই

ছোট চাচীর সাথে আমার সম্পর্ক তৈরী হয় মাত্র কয়েক দিনেই

 

ছোট চাচীর সাথে আমার সম্পর্ক তৈরী হয় মাত্র কয়েক দিনেই। আমার চাচা চাকুরী করেন। তিনি রাজশাহীতে থাকেন। আমি এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে বাসায় বেকার সময় ঘুরে ফিরি বেড়াচ্ছি। বন্ধুদের সাখে আড্ডা ও দুষ্টামী করে বেড়ানো।

একদিন সন্ধ্যায় বাসায় মোবাইল করে চাচা। তিনি বলেন আমি যেন রাজশাহীতে আসি। তিনি কয়েকদিনের জন্য ঢাকায় ট্রেনিং এ যাবেন। চাচী বাসায় একা থাকতে পারবেনা বিধায় আমাকে যেতে হবে। চাচীর সাথে থাকতে হবে।

চাচা এও বলে দেয় আমি যেন সাথে করে চাচার ছোট শালী বৃষ্টিকে সঙ্গে করে নিয়ে আসি। বৃষ্টির কথা শুনে আমার তো মনে ফাগুনের রং চলে আসে। কারন বৃষ্টির সাথে আমার সেই রকম সম্পর্ক। সম্পর্কে সে আমার আন্টি হয়। তার পরেও তার সাথে আমার রসায়ন খুবই মিস্টি। কারন সে আর আমি একই স্কুল থেকে পরীক্ষা দিয়েছি।

আমি অলরেডি তাকে কয়েকবার প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছি। কিন্তু সে প্রতি বারেই হেসে প্রত্যাখান করেছে। এবং বার বার শাষিয়েছে বাসায় বলে দেবে। সাথে এও বলেছে আমি যে তার ভাগ্নে হই এটা মনে রাখতে।

 

ভিডিওটি দেখতে  এখানে ক্লিক করুন

 

আমি চিন্তা করি এটা কোন কথা হলো নাকি। যুবক বয়সে আবার কিসের আন্টি আর পেন্টি। সব সমান। তা ছাড়াও সে তো আর রক্তের আন্টি নয়্।

যথা সময়ে চাচার বাড়িতে আমার তথাকথিত আন্টি ও বান্ধবীকে নিয়ে পৌঁছে যাই। চাচীতো মহা খুশি। চাচাও বাসায় ছিলেন্।

আগেই বলে রাখি আমার চাচা ছিলেন নিঃসন্তান। আমার চাচী কখনোই মা হতে পারবেন না। বিধায় চাচী আমাকে নীজের সন্তানের মতো ভালো বাসতেন।

আমি বরাবরি চাচীর প্রতি দূর্বল ছিলাম কারন চাচীর লোভনীয় রান্না আমাকে পেটুক বানিয়ে ছাড়তো। আর চাচীও আমাকে বেশী করে খাইয়ে মজা পেতেন।

আমি ও বৃষ্টি দুই দিনের মধ্যে আরো ফ্রি হয়ে গেলাম। এখানে এসেও আরো একদফা প্রেম নিবেদন করলাম। এবার বৃষ্টি আর প্রত্যাখান করলো না আবার গ্রহণও করলো না। বলতে পারেন ঝুলিয়ে রাখলো।

 

বন্ধুরা আজ আর এখানে শেষ করলাম না। পরের পর্বে বৃষ্টি ও আমার রসায়ন ব্যক্ত করবো। সাথে চাচীর সাথে রাতের বেলা কি হলো তাও বলবো।

About Rajib

Leave a Reply